দাঁতের ব্যথার সমাধান

দাঁতের ব্যথা আমাদের খুব পরিচিত সমস্যা । যে কারো দাঁতের ব্যথা হতে পারে । তবে সাধারণত যারা দাঁতের যত্ন নেয় না বা ঠিকমত দাঁত পরিষ্কার করে না তাদের এই সমস্যা বেশী হয়ে থাকে ।

সম্মানিত পাঠকসমুহ,এই আর্টিকেলের মাধ‌্যমে দাঁতের ব্যথার পরিপুর্ন সমাধান পেয়ে যাবেন আশা করা যায়। দাঁতের ব্যথার কারন লক্ষন ও প্রতিকারসমুহ বিস্তারিতভাবে আলোচনা করা হল।

কারন সমূহঃ
১। খতুর পরিবর্তন ।
২। ঠাণ্ডা লাগা।
৩। দাঁতে পোকা লাগা।
৪। দাঁতের এনামেল নষ্ট হয়ে গেলে।
৫। শারীরিক দুর্বলতা বা ক্যালসিয়ামের অভাব ।
৬। খাবার পর ঠিকমত দাঁত পরিষ্কার বা ব্রাশ না করা।

লক্ষন সমৃহঃ-
১। দাঁতের গোড়া লাল হয় ও ফুলে যায়।
২। দাঁতের গোড়ায় Septic fucas হলে মুখ ফুলে যায় এবং অসহ্য ব্যথা হয়।
৩। লালা ক্ষরন হতে পারে।
৪। তীব্র ব‌্যথায় রোগী অস্থির হয়ে উঠে।

প্রাথমিক চিকিৎসাঃ–
১। দাঁতের মধ্যে কিছু ঢুকলে ফ্লস করে বের করার চেষ্টা করুন।
২। ব‌্যথা নাশক ওষুধ খেতে পারেন ।
৩। নিয়মিত নিমের ডাল দিয়ে দাঁত পরিষ্কার করতে পারেন।

আনুষঙ্গিক বাবস্থাঃ-
১। ভাল কোন ডেন্টিস্টের পরামর্শ নিতে হবে এবং তার কথা মত চিকিৎসা করাতে হবে।
২। শক্ত জিনিস খাবেন না।
৩। নরম খাবার খাবেন।
৪। নড়া দাঁত থাকলে ফেলে দেওয়া ভাল ।
৫॥ খাওয়ার পরে ভাল করে কুলকুচা করা উচিত ও নিয়মিত দাঁত ব্রাশ করতে হবে।

দাঁতের মাড়িতে রক্ত পড়া
দাঁতের সমস্যার মধ্যে অন্যতম সমস্যা হলো মাড়ি থেকে রক্ত পড়া ॥ এই সমস্যা শুর হলে অনেক চিকিৎসা করেও রেহাই পাওয়া
সম্ভব হয় না যদি না আপনি নিজে থেকে সচেতন হয়ে যত্ন না নেন। দাঁতের মাড়ি থেকে রক্ত পড়া রোধে আপনি করতে পারেন নানা
কাজ। এই কাজগুলো তাৎক্ষণিক ভাবে উপশমে কিছুটা ভুমিকা পালন করে।

কারন সমুহ:-
১। নিয়মিত ব্রাশ না করা বা ব্রাশ করতে গিয়ে খোঁচা লাগলে ।
২। ভিটামিন সি ও কে এর অভাব জনিত কারনে হতে পারে ।
৩। মুখ কম স্থাস্থ্যকর হলে।
৪। ব্যাক্টেরিয়ার সংক্রামন হলে।
৫। কোন শক্ত পদার্থ দ্বারা খোঁচা লাগলে ।
৬। গর্ভবতী অবস্থায় হতে পারে ।
৭। গরম খাবার খেলে ।
৮। লিউকিমিয়ার (শ্বেত রক্ত কনিকার অভাবে)

লক্ষন সমৃহঃ-
১। দাঁতের গোঁড়া বা মাড়ি দিয়ে রক্ত পড়ে ।
২। হালকা ব্যাথা হতে পারে।
৩। দাঁতের মধ্যে শির শির করতে পারে ।

প্রাথমিক চিকিৎসাঃ.
১। ভাল কোন দাঁতের ডাক্তার দেখান ।
২। বরফের প্যাকেট দিয়ে চাপ দিন।
৩। দাঁতের স্কেলিং করাতে পারেন।
৪। লবন পানির গড়গড়া করুন দিনে ২/৩ বার ।
৫। দাঁতের ভিতর কোনকিছু দিয়ে খোঁচাবেন না।
৬। মাড়ি আস্তে আস্তে ম্যাসাজ করুন ।
৭। ডাক্তারের পরামর্শ গ্রহন করুন।

আনুষঙ্গিক বাবস্থাঃ-
১। নিয়মিত সুন্দর করে সাবধানে নরম ব্রাশ দিয়ে ব্রাশ করুন।
২। ধূমপান পরিহার করুন।
৩। নিয়মিত ফ্রুস বা সুতা দিয়ে দাঁতের ফাঁকের ময়লা পরিষ্কার করুন।
৪। নিম গাছের ডাল দিয়ে মেসওয়াক করতে পারেন।

Leave a Comment