চুলকানি সমস‌্যার স্থায়ী সমাধান

সম্মানিত পাঠকবৃন্দ আজ আমরা আপনাদের সামনে চুলকানি সমস্যার সমাধান নিয়ে হাজির হয়েছি! সর্বশরীর চুলকালে কিংবা প্রসবদ্বার চুলকালে করনীয়সমুহ আজ বিস্তারিতভাবে আলোচনা করা হবে।

সর্বশরীর চুলকানি
অনেক কারণে চুলকাতে পারে ॥ যে কোন বয়সে এ রোগ হতে পারে । বৃদ্ধ বয়সে এ রোগ বেশী দেখা যায়।
১। শরীরের মধ্য হতে এন্টিজেন সৃষ্টি হয়ে এলার্জি দেখা দিলে জন্ডিস, বহুমুত্র, খোস-পাঁচড়া, রক্তে ইউরিমিয়া বা লিউকিমিয়া প্রভৃতি রোগ হলে সর্ব শরীর চুলকায়!
২। অনেক সময় আক্রান্ত ব্যক্তি চুলকাতে চুলকাতে আক্রান্ত স্থানে চামড়া উঠিয়ে ফেলে এবং পরে এতে জীবাণু দ্বারা আক্রমিত হতে পারে।

রোগের লক্ষন সমুহঃ
১। আক্রান্ত স্থান চুলকায় ॥
২। নখের সাহায্যে চুলকানোর পরে সলে যায় এবং নখের সাথে জীবাণু লেগে এটি পাকে।
৩। এটি কতগুলো নির্দিষ্ট স্থানে হয়।
৪। বয়স্ক লোকদের তুলনায় শিশু ও বালকবালিকাদের কম হয় এবং তাদের পা ও হাতের তালুতে হয় ।
৫। ঠিকমত চিকিৎসা না হলে পরবর্তীতে সমস্যা হতে পারে।

খাবার ও চিকিৎসাঃ
১। ডাক্তারের পরামর্শ অনুযায়ী মূল রোগের চিকিৎসা করতে হবে ।
২।গরম মসলাযুক্ত খাবার বাদ দিতে হবে।
৩। যে খাবার খেলে শরীরের চুলকানী বৃদ্ধি পায় সে খাবার বাদ দিতে হবে।
৪। গরুর মাংস, হাঁসের মাংস, ডিম, চিংড়ি মাছ, ইলিশ মাছ, বেগুন, পাকা কলা, ইত্যাদি খাওয়া বন্ধ

প্রসবদ্বারে চুলকানি
যেকোন সময় অনেক কারণে প্রসবদ্ধার চুলকাতে পারে ॥ তবে কারো কারো গর্ভাবস্থায় অধিক চুলকানোর কথা শোনা যায়।

রোগের কারনঃ
১। কোন কারণে মলদ্বার হতে সুতা কৃমি প্রসবদ্ধারে প্রবেশ করলে কিংবা প্রসবদ্ধারে কৃমি ডিম পাড়লে, বহুমুত্র, দাদ বা এক্সিমা রোগ হলে, ক্লোরাম ফেনিকল বা টেট্রাসাইক্রিন ক্যাপসুল অধিক ব্যবহার করলে, লিকোরিয়া হলে, এলার্জি হলে, প্রসবদ্ধার ঠিকমত পরিষ্কার না করলে এমন চুলকানি হতে পারে।
রোগের লক্ষন সমৃহঃ
১ প্রসবদ্ধার চুলকায় ।
২। অস্থস্থি ও বিরক্ত অনুভুত হয়।
৩। চুলকানোর কারনে অনেক সময় জ্বর আসতে পারে ।

খাবার ও চিকিৎসাঃ
১ কারণ ঘটিত রোগের চিকিৎসা করতে হবে॥ যেমন – লিকোরিয়া, সুতা কৃমি প্রভৃতি রোগ থাকলে তার চিকিৎসা করতে হবে।
২। এলার্জি যুক্ত খাবার খাওয়া যাবে না॥
৩। কারণ ঘটিত রোগের চিকিৎসা করতে হবে ।

Leave a Comment